Bangla Golpo – শোনা কথায় কখনো কান দিতে নেই

Bangla Golpo: অনেক দিন আগের কথা কলঙ্কের পাশের জঙ্গলে বসবাস করত এক খরগোশ। বনের অন্যান্য পশু পাখিদের মতো খরগোশ ও গভীর জঙ্গলে বাস করত।

সেই জঙ্গলের ধার ঘেঁষে এক বিশাল নদী অনেকদূর পর্যন্ত বয়ে গেছে।। সেই নদীর ধার ঘেঁষে অনেক বেল আর নারকেল গাছ ছিল।

সেখানকার একটি বেল গাছের নিচে বসবাস করত খরগোশ।। একদিন খরগোশটি শুয়ে শুয়ে ভাবছি, ‘ পৃথিবী যদি হঠাৎ ধ্বংস হয়ে যায়, তখন আমি কোথায় যাব ?’

আৱ ঠিক তখনই  বেল গাছ থেকে একটি বড়  বেল মাটিতে পরল।। সেই শব্দ শুনে খরগোশ লাফিয়ে উঠলো এবং সে মনে মনে ভাবতে লাগল এই বুঝি পৃথিবী ধ্বংস হতে শুরু  হয়েছে।। সঙ্গে সঙ্গে খরগোশটি পড়ি কি মরি বলে জঙ্গলের ভেতর দিয়ে ছুটতে লাগলো।

জঙ্গলের ভেতর দিয়ে ছুটতে ছুটতে তার দেখা হল আরেক খরগোশের সঙ্গে।। সেই খরগোশটা তাকে জিজ্ঞাসা করল, কি ব্যাপার ?তুমি এভাবে  ছুটে পালাচ্ছো কেন ? প্রথম খরগোশটা এক মুহূর্ত থেমে হাঁপাতে হাঁপাতে দ্বিতীয় খরগোশ টাকে বলল ‘ তুমি কি শুনতে পাচ্ছ না পৃথিবী ধ্বংস হতে শুরু করেছে ‘।

প্রথম খরগোশটা আর একথা শুনে দ্বিতীয়  খরগোশ অবাক হয়ে গেল এবং সে ভয় পেতে লাগলো।।  দ্বিতীয় খরগোশটা প্রথম খরগোশের পিছু নিল।। এভাবে আস্তে আস্তে দেখা গেল গোটা জঙ্গলের সব খরগোশই প্রাণের দায়ে ছুটে চলেছে।

জঙ্গলের মধ্যে এক ঘোড়া মনের আনন্দে ঘাস খাচ্ছিল।।   একসঙ্গে এত খরগোশকে সে ছুটতে দেখে একটি খরগোশকে থামিয়ে জিজ্ঞাসা করল, ‘ কি ব্যাপার তোমরা একসঙ্গে সবাই কোথায় চললে ?’

তখন একটা খরগোশ বললো পৃথিবী ধ্বংস হতে শুরু হয়েছে তাই আমরা এখান থেকে পালিয়ে যাচ্ছি।।  একথা শুনে ঘোড়া ও অবাক হয়ে গেল ও ভয় পেয়ে তাদের পিছু নিল।। শেষ পর্যন্ত এমন অবস্থা দাঁড়ালো যে দেখা গেল গোটা জঙ্গলের  সব জন্তুুই ভয়ে ছুটতে লাগলো।

বনের জন্তুদের এভাবে ছুটতে দেখে  বনের রাজা সিংহ তখন থমকে দাঁড়িয়ে পৱলেন। এবং একটি ঘোড়া কে ডেকে বললেন কি ব্যাপার তোমরা  এভাবে কোথায় যাচ্ছ।। তখন ঘোড়াটা পৃথিবী ধ্বংস কথা সিংহ কে বলল।

ঘোড়ার কথা শুনে সিংহ মনে মনে ভাবল ওরা নিশ্চয়ই কোন শব্দ শুনে ভয় পেয়েছে।।  যে করে হোক ওদের বাঁচাতে হবে।। সিংহ তখন এক এক করে সব পশুকে দাঁড় করিয়ে জিজ্ঞাসা করল কার কাছ থেকে ওরা শুনেছি পৃথিবী ধ্বংস  হতে শুরু করেছে।

এভাবে প্রতিটি পশুকে জিজ্ঞাসা করে শেষ পর্যন্ত সে  আসল খরগোশেৱ কাছে গিয়ে পৌঁছালো।। আসল খরগোশটি কে দাঁড় করিয়ে সিংহ জিজ্ঞাসা করল কি হয়েছে ,’ তুমি  কোথায় শুনলে যে পৃথিবী ধ্বংস হতে শুরু করেছে ?’  

তখন বড় বড় চোখ করে খরগোশটি বলতে লাগলো,  আমি আমার কুটিরে শুয়ে ছিলাম , এবং মনে মনে,ভাবছিলাম পৃথিবী যদি কোনদিনও ধ্বংস হয়ে যায় আমি তখন কোথায় যাব ?      

ঠিক  তখনই শুনতে পেলাম পৃথিবী ধ্বংস হওয়ার প্রাথমিক শব্দ।

সিংহটি তখন আপন মনে চিন্তা করতে করতে অন্য পশুদের বলল,  তোমরা এখানেই অপেক্ষা করো আমি এখনই আসছি।। তারপর সিংহ খরগোশটিকে  নিয়ে খরগোশ টির কুটিরে গেল।

কুটিৱে গিয়ে সিংহ  খরগোশটিকে জিজ্ঞাসা করল কোথায় তুমি শুয়ে ছিলে ?

 তখন খরগোশটি একটু দূর থেকে  আঙ্গুল দিয়ে সেই জায়গাটা দেখিয়ে দিল।। তারপর সিংহ সেখানে  গেল এবং সেখানে সে দেখতে পেলো যে একটি বড় পাকা বেল মাটিতে পড়ে ফেটে রয়েছে।।  সিংহ তখন বুঝতে পারলো যে খরগোশটি সেই পাকা বেলে পড়ার আওয়াজ শুনে ভয় পেয়ে গেছিল।। সিংহ তারপর খরগোশ টিকে ডাকদিল এবং তাকে বেলটাকে দেখালো।

খরগোশ চোখ বড় বড় করে বেলটাকে দেখতে লাগলো। সিংহ তারপর আবার বনের মধ্যে ফিরে এলো যেখানে সব  পশুগুলি দাঁড়িয়েছিল।

এসে সব পশু গুলোকে সমস্ত ঘটনা বুঝিয়ে বলল।  সিংহর কথা শুনে সব পশুরা আবার স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলল।

সিংহ তারপর  সবাইকে বলল দেখো, ‘শোনা কথায় কোনোদিনও কান দিতে নেই।’

গল্পটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ, আমাদের গল্প যদি আপনাদের ভালো লাগে তাহলে আপনাদের বন্ধুদের সঙ্গে গল্পটি শেয়ার করতে ভুলবেন না ।। নমস্কার।

আরো পড়ুন: Motivational Story in Bengali – অহংকারই পতনের কারণ

Leave a Comment