Bengali Sad Love Story – একটি দুঃখজনক সফল ভালোবাসার গল্প

Bengali Sad Love Story – একটি দুঃখজনক সফল ভালোবাসার গল্প

Bengali Sad Love Story: বাপ্পা ও স্নেহা ছোট বেলা থেকেই তারা অনেক ভালো বন্ধু ছিল। তারা একসঙ্গে খেলতে এবং একসঙ্গে স্কুলে যেত ও এক সঙ্গে পড়াশুনা করতো।তাদের মধ্যে একে অপরের সঙ্গে ঝগড়া করতো আবার মারামারি হতো। কিন্তু তাদের বন্ধুত্ব ছিল খুব গভীর এবং অটুট। তবুও তারা একে অপরকে ছাড়া থাকতে পারত না। এইভাবে কিছু বছর তাদের শৈশব বলতে মধ্যে দিয়ে কেটে গেল। ও তাদের এই মন্ত্রটি সময়ের সাথে সাথে গভীর হয়ে যেতে লাগল। এবং তাদের মধ্যেই বলুন ভালবাসায় পরিনত হয়ে যেতে লাগলো। ও তাদের কলেজ লাইফ পর্যন্ত তাদের এই ভালোবাসাটি  চলতে থাকলো। একদিন একটি খোলামেলা জায়গায় তারা দুজনে দেখা করল এবং বাপ্পাকে স্নেহা বলল এই বাপ্পা চল না আমরা দুজন কোথাও পালিয়ে দুজনে বিয়ে করে নিই। বাপ্পা বলল এখন এটা সম্ভব না। কারন আমি বেকার, কোন কাজ করি না এখন আমি তোমাকে নিয়ে খাওয়াবো কি। আমরা এখন কিছু করার নেই। তখন সেই মেয়েটি বলল ঠিক আছে। স্নেহা কেঁদে দিলেও এবং কাঁদতে কাঁদতে বাপ্পাকে জড়িয়ে ধরে বলল যে তুই তো আমার সব। আমি তোর জন্য পাঁচ বছর কেন সারা জীবন অপেক্ষা করবো।

বেশি এভাবে আরো কিছু বছর কেটে গেল। এইভাবে চলতে চলতে বাপ্পা ও কোয়েলের পরিবারে এই সম্পর্কের ব্যাপারে জানাজানি হয়ে যেতে লাগল। ও তাদের দুই পরিবারের মধ্যে অনেক অশান্তি দেখা দিল।প্রায় দুই থেকে তিন মাস কেটে গেল এইভাবে ও তাদের মধ্যে কোন কথা ছিলনা।একদিন সকালে বাপ্পার ফোনে একটি মেসেজ আমার বিয়ে ঠিক হয়ে গেছে তুমি আমাকে ভুলে যাও প্লিজ, আমাকে আর মনে রেখ না প্লিজ। সেই এসএমএসটি দেখিয়ে বাপ্পা অনেক হতাশ হয়ে উঠলো এবং তার মন ভেঙে পড়ে। এই কথাটি শোনার পরে বাপ্পা খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে দিয়েছিল প্রায়, কথা বলছে না কারো সাথে ঠিক করে। এর ফলে বাপ্পার শরীর অসুস্থ হয়ে পড়ে। একদিন বাপ্পা স্নেহাকে ফোন করে বলল আমি তোমার সঙ্গে কিছু কথা বলতে চাই। এরপর সেই মেয়েটি বল্লো কি কথা? বাপ্পা বলল সেরকম কোন কথা নয়! শুধু আমি তোর সঙ্গে দেখা করতে চাই। মেয়েটি বলল কোথায়? বাপ্পা বলল আগে যেখানে দেখা করেছিলাম আমরা। ঠিক বিকেল চারটের দিকে। এই বলে বাপ্পা ফোনটি কেটে দিল।

Bengali Sad Love Story

এরপর তারা দুজনে দেখা করল। বাপ্পা যখন সেই মেয়েটির সঙ্গে দেখা করল ,তখন চোখ দিয়ে জল ঝরতে শুরু করলো সেই মেয়েটির জন্য। এরপর বাপ্পা সেই মেয়েটিকে তার মনের কথা বলল। স্নেহা এই কথাটি শুনে বাপ্পাকে জড়িয়ে ধরে বলল আমি ও তোমাকে খুব ভালোবাসি। এই কথাটি বলে সেই মেয়েটি বাপ্পাকে জরিয়ে ধরল। এরপর বাপ্পা সেই মেয়েটির সঙ্গে সেই মেয়েটির বাড়িতে গেল এবং তাদের সম্পর্কের কথা সেই মেয়েটির পরিবারকে জানানো। অনেক কিছু বলা সত্ত্বেও মেয়েটির পরিবার তাদের সম্পর্কের কথা মেনে নিতে পারেনি। এরপর তারা সেখান থেকে চলে আসে। অবশেষে বাপ্পা তার বন্ধুদের তাদের সম্পর্কের কথা জানায়। এরপর বাপ্পার চার বন্ধু রামেন, প্রীতম, রাহুল ও আকাশ তাকে সাহায্য করার জন্য রাজি হয়। 

এরপর বাপ্পা বলে তোরা তো আমার সব থেকে ভালো বন্ধু তোরা সাহায্য করবে না তো  কে করবে। বাপ্পা তার বন্ধুদের বলে তোরা কোন একটা ব্যবস্থা কর। তারা বাপ্পার কথা শোনার পর বলল দাড়া আমরা কোন একটা ব্যবস্থা করে দিচ্ছি। এই বলে বাপ্পার বন্ধুরা বাপ্পা কে উপদেশ দিল যে তোরা দুজন পালিয়ে বিয়ে করে নে। তাহলে আমরা তোকে এই ব্যাপারে সাহায্য করবো। এই কথাটি শুনে বাপ্পা বিয়ে করতে রাজি হয়ে গেল সেই মেয়েটিকে। এবং বাপ্পা সেই মেয়েটিকে তাদের বিয়ের ব্যাপারে বললো এর পর সেই মেয়েটি বিয়ের জন্য রাজি হয়ে যায়। বাপ্পার বন্ধুরা তাদের দুই জনের বিয়ে দিয়ে দেয় একটি মন্দির এ। তারা দুজনে এই বিয়ে করে খুবই খুশি হয়।

এর পর বাপ্পা সেই মেয়েটিকে নিয়ে তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়।এরপর বাপ্পার পরিবারের সবাই খুশি হয়ে তাদের দুই জন কে বরণ করে ঘড়ে তোলে তাদের।তাদের বিয়ের কিছু দিন পর মেয়ে টির পরিবারের অন্তর্গত সবাই তাদের সম্পর্ক টিকে মেনে নিতে বাধ্য হয়। এরপর থেকে তাদের মধ্যে ভালো এক সম্পর্ক তৈরি হয়ে যায়।

তো বন্ধুরা আমাদের এই Bengali Sad Love Story টি পরে আপনাদের ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন। গল্পটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।

আরো পড়ুন: Valobashar golpo bangla – ছোট্টবেলার ভালোবাসা

Leave a Comment